বুধবার | ১২ অগাস্ট, ২০২০

মহীয়সী নারী নন্দা ত্রিপুরা’র মৃত্যুতে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন মহলের শোক প্রকাশ

প্রকাশঃ ০৬ জুলাই, ২০২০ ১০:২৭:৪৬ | আপডেটঃ ১২ অগাস্ট, ২০২০ ০৩:২৫:৩৮
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। মুজিব নগর সরকারের সাবেক প্রশাসনিক কর্মকর্তা প্রয়াত বরেন ত্রিপুরা’র সহ-ধর্মিনী নন্দা ত্রিপুরা সোমবার বিকেলে বার্ধক্যজনিত রোগে খাগড়াছড়ি শহরের মিলনপুরস্থ নিজ বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।

তিনি সাবেক সচিব ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা এবং বর্ষীয়াণ রাজনীতিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা’র মা।

তাঁর মৃত্যুতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি, খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য ও ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, নারী সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, পুলিশ সুপার মো: আব্দুল আজিজ, খাগড়াছড়ির পৌর মেয়র মো: রফিকুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সা: সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি নলেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, মারমা উন্নয়ন সংসদ-এর কেন্দ্রীয় সা: সম্পাদক মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, খাগড়াছড়ি ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির সা: সম্পাদক মো: দিদারুল আলম, উপজাতীয় ঠিকাদার সমিতির সভাপতি মংক্যচিং মারমা ও সা: সম্পাদক মিল্টন চাকমা, বিশিষ্ঠ ঠিকাদার মো: সেলিম ও এস. অনন্ত বিকাশ ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি জেলা ক্রীড়া সংস্থা’র সা: সম্পাদক জুয়েল চাকমা, খাগড়াছড়ি পরিবেশ সুরক্ষা আন্দোলনের সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী ও সা: সম্পাদক মুহাম্মদ আবু দাউদ পৃথক পৃথক বিবৃতিতে রতœগর্ভা নারী নন্দা ত্রিপুরা’র মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

প্রয়াতার নাতনি জামাই ও বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ-এর কেন্দ্রীয় সা: সম্পাদক অনন্ত কুমার ত্রিপুরা জানান, মঙ্গলবার দুপুর নাগাদ পানখাইয়াপাড়াস্থ মহাশ্মশানে তাঁর সৎকার ক্রিয়া সম্পন্ন হবে।


এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষে ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল আলম নিজামী, বোর্ড  চেয়ারম্যানের মাতা নন্দা ত্রিপুরার মৃত্যুতে শোক প্রকাশের পাশাপাশি বিদেহী আত্নার পরমার্থিক সদগতি কামনা করেন।

খাগড়াছড়ি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions