বুধবার | ০৮ এপ্রিল, ২০২০

সংস্কারের অভাবে পরিত্যক্ত রাঙামাটি পর্যটন অডিটোরিয়াম ভবন

প্রকাশঃ ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১১:৪৯:৩০ | আপডেটঃ ০৮ এপ্রিল, ২০২০ ০৪:১১:২২
সিএইচটি টুডে ডট কম,রাঙামাটি। সংস্কারের অভাবে দীর্ঘ সাত বছর ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে, রাঙামাটি সরকারি পর্যটন কর্পোরেশনের অডিটোরিয়াম ভবনটি। এতে ব্যাপক লোকসান যাচ্ছে সরকারের। সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব। এ অবস্থায় পড়ে থাকলে কিছু সময়ের মধ্যে সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে। তাই দ্রুত এ ভবনটির সংস্কার দরকার। না হলে ভবনটি নির্মাণে ব্যয় করা সরকারের কয়েক কোটি টাকাও গচ্চা যাবে। সংশ্লিষ্ট পর্যটন কর্পোরেশনের দায়িত্বশীল সূত্র এসব তথ্য জানিয়েছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, প্রবেশ মুখেই ঠাই দাঁড়িয়ে রাঙ্গামাটি সরকারি পর্যটন কর্পোরেশন ও হলিডে কমপ্লেক্সে নির্মিত অডিটোরিয়াম ভবনটি। সামনে রাস্তা দিয়ে লোকজন ও যান চলাচল করলেও ভবনটির আশপাশ জনশূন্য। পড়ে রয়েছে পরিত্যক্ত অবস্থায়। বিশাল জায়গাজুড়ে নির্মিত এতবড় ভবন সম্পূর্ণ অকেজো।

জানতে চাইলে পর্যটন কর্পোরেশন ও হলিডে কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক সৃজন বিকাশ বড়–য়া বলেন, ওই অডিটোরিয়াম ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছে ১৯৮৭ সালে। কিন্তু তৎকালীন পার্বত্য চট্টগ্রামে বিরাজমান পরিস্থিতির কারণে তখন অডিটোরিয়মটি তেমন কোনো কাজে লাগানো যায়নি। পরবর্তীতে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসায় সেখানে প্রচুর অনুষ্ঠান আয়োজন সম্ভব হয়েছিল। এতে ভাড়ার মাধ্যমে যথেষ্ট রাজস্ব আয় হয়- যা দিয়ে নির্মাণ ব্যয়ের কিছু অর্থ উঠে আসে। পরে বেসরকারি একটি কোম্পানিকে চুক্তিতে ইজারা দেয়া হয়েছিল। তারা যা তা করে ব্যবহার করায় ভেতরে অডিটোরিয়ামের মঞ্চ, সরঞ্জামাদি, আসন, আসবাবপত্র, বৈদ্যুতিক যন্ত্রসহ গুরুত্বপূর্ণ সব ব্যবস্থাপনা নষ্ট করে ফেলে। ভবনের স্থাপনারও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ফলে ২০১২ সাল হতে এ অডিটোরিয়াম ভবনটি পরিত্যক্ত হয়ে অকেজো অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এটি দিয়ে রাজস্ব আয় সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গেছে। ভবনটি জরুরি ভিত্তিতে সংস্কার দরকার। অডিটোরিয়ামটি অকেজো হওয়ায় পর্যটন এলাকা হিসেবে কেউ বড় অনুষ্ঠান করতে চাইলে আমরা জায়গা দিতে পারি না। এটি সংস্কার করা হলে এ পর্যটন কমপ্লেকে রাজস্ব আয় আরও বাড়বে। অডিটোরিয়ামটিতে আসন সংখ্যা ১৮০।   

পর্যটন |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions