বুধবার | ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

আদালতেই হত্যার হুমকি দিয়ে ফাঁসলেন শিক্ষক বিপু

প্রকাশঃ ২৩ জানুয়ারী, ২০২০ ১১:২৮:৩২ | আপডেটঃ ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৩:৩৯:২০
সিএইচটি  টুডে ডট কম, রাঙামাটি। নানান কারণে বহুল আলোচিত শিক্ষক ফারুক আহমেদ তালুকদার বিপু এবার মামলার স্বাক্ষিকে আদালতেই হত্যার হুমকি দিয়ে ফেঁসে গেছেন। দোষ স্বীকার করায় তাকে ৪৮ ঘন্টা কারাবাসের আদেশ দিয়ে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওই মামলার আসামী হিসেবে হাজিরা দিতে বিপু আদালতে যান।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) রাঙামাটির চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ.এন.এম মোরশেদ খান এর আদালত এই আদেশ দেন। বিপু জেলার বাঘাইছড়ি সাজেকের ছয়নালছড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মনজুরুল ইসলাম জানান, হত্যাচেষ্টা ও লুটপাটের একটি মামলায় চার্জগঠনের তারিখ থাকায় আসামী হিসেবে বৃহস্পতিবার ফারুক আদালতে যান। কিন্তু এজলাস থেকে বেরিয়ে ওই মামলার বাদী সাজিয়া বেগমের সামনে তার স্বামী ও স্বাক্ষি ইমদাদুল ইসলামকে অপহরণ ও গলাকেটে হত্যার হুমকি দেন।

বিষয়টি সাজিয়া বেগম তাৎক্ষণিক আদালতকে জানান। আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে পুলিশ পাঠিয়ে বিপুকে কাঠগড়ায় তোলেন। এ ঘটনায় দোষ স্বীকার করায় ৪৮ ঘন্টার কারাবাসের সাজা দিয়ে বিপুকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

গত ২৭ ও ৯ মার্চ দু’দফায় সাজিয়া বেগম ও তার স্বামী এমাদুল ইসলামকে বিপু ও তার সহযোগিরা বেধড়ভাকে মারধর করে। এই ঠিকাদার দম্পতিকে মেরে রক্তাক্ত ও শ্লীলতাহানী করায় ‘হত্যাচেষ্টা ও লুটপাটের’ মামলায় তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিপু জেলে বসেই সহযোগিদের দিয়ে ওই দম্পতিকে ‘মামলা তুলে না নিলে সন্তানকে বিদ্যালয় থেকে অপহরণ’ করার হুমকি পাঠান। এনিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন এই দম্পতি। অবশ্য পরে জামিনে মুক্তি পান বিপু।

স্থানীয়রা জানান, গত ১২ জানুয়ারি রাঙামাটি শহরের কোর্টবিল্ডিং সোনালী ব্যাংক এলাকায় সৎ মা’য়ের হাতে গলা কেটে হত্যাচেষ্টার শিকার হওযা চার বছরের শিশু ফারজান আহাম্মেদর বাবা হলেন এই বিপু। আর ঘাতক সৎ মা কাউসার ফেরদৌস বিপুর প্রথম স্ত্রী।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions