শুক্রবার | ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
বান্দরবানের

প্রবল বর্ষণে নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু আবারো প্লাবিত,পাহাড় ধসে আহত ৪

প্রকাশঃ ০১ অগাস্ট, ২০২১ ১০:০৯:৪৯ | আপডেটঃ ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১২:৫০:৫৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। প্রবল বর্ষণ আর পাহাড়ী ঢলের পানিতে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার  ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু গ্রাম আবারোও প্লাবিত হয়ে পড়েছে। টানা বৃষ্টিতে পানিবন্দি অসহায় মানুষরা জীবন বাচাঁতে দিকবেদিক ছুটছে।

১লা আগষ্ট (রবিবার) সকালে পানিতে প্লাবিত হয়ে পড়ে  তুমব্রু এর পশ্চিমকুল, হিন্দুপাড়া, বাজার পাড়া, কোনার পাড়া, মধ্যম পাড়া ও তুমব্রু বাজারে অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ীক প্রতিষ্টান এবং মৎস্য চাষীদের পুকুর। কয়েকদিনের ব্যবধানে ২য় দফায় পানিবন্দী হওয়ায় বিপুল পরিমান ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হলো এলাকার জনসাধারণ।

তুমব্রু বাজারের ব্যবসায়ী মো. ইমাম হোসন বলেন, ১ম ও ২য় বার টানা বর্ষণের কারনে পানিতে ভেসে প্রায় ৩লক্ষ টাকার বিভিন্ন মালামাল আর নষ্ট হলো অনেক কিছু। তিনি আরো বলেন, ধার-দেনা করে দোকানে মূলধন দিয়ে মালামাল মজুদ করে ছিলাম,হঠাৎ বন্যার পানিতে তলিয়ে গেল আমার ব্যবসার অনেক মালামাল।

মৎস্য চাষী তুমব্রু বাজার পাড়ার হামিদুল হক বলেন, চলতি মৌসুমে বাজারের নিজ মালিকানাধীন ৪০ শতক পুকুরে মাছের চাষ করেছি, সেখানে রুই,কাতাল,মাগুরসহ নানা প্রজাতির প্রায় দেড় লক্ষ টাকার মাছের পোনা ছেড়েছি। মৎস্য পুকুর পরিচর্যার শ্রমিক, মাছের খাবার সহ আনুষাঙ্গিক খরচ মিলে অন্তত ২ লাখ টাকা বিনিয়োগ করি। গত ২৭ জুলাই একবার এবং ৩১ জুলাই রাত থেকে শুরু হওয়া ২য় দফার টানা প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে মাছের পুকুরটি প্লাবিত হয়ে সম্পূর্ণ মাছ ভেসে গেছে, অনেক ক্ষতি হয়ে গেল আমার।

এদিকে ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকায় দুপুরে পাহাড়ধসে একই পরিবারের ৪জন আহত হয়েছে। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের মনজয় পাড়া এলাকায় এই পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটে রবিবার দুপুরের দিকে। এদিকে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয়রা পার্শ্ববর্তী উখিয়ার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।
মনজয় পাড়ার এক গাড়ী চালক মোহাম্মদ আইয়ুব আলীর বাসার উপর একটি পাহাড়ের মাটি ধসে পড়ে দুর্ঘটনাটি ঘটে। এসময় ঘরে থাকা তার স্ত্রী শাহানা আক্তার (৩৬) পুত্র মোঃ রাসেল (১৮) মেয়ে তসলিমা আক্তার (১৩) ও পারভেজ (৯) আহত হয়।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান একে এম জাহাঙ্গীর আজিজ জানান,৩১ জুলাই (শনিবার) রাত থেকে আবারও টানা অতিবর্ষণের ফলে পাহাড়ী ঢল এসে তুমব্রু এলাকা প্লাবিত হয়ে চলাচল বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে আর এবারে প্রায় ২শতাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। চেয়ারম্যান আরো বলেন,রাত থেকে অনবরত বৃষ্টি হওয়ায় মনজয়পাড়ায় পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে আর এতে ৪জন আহত হয়েছে।

প্রসঙ্গত: জুলাই মাসের ২৭ তারিখ থেকে টানা কয়েকদিনের বৃষ্টিতে ঘুমধুম ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রাম পানিতে প্লাবিত হয়ে যায় এরপরে আবার ১লা আগষ্ট (রবিবার) টানা বর্ষণে তুমব্রু গ্রাম পানিতে প্লাবিত হয় , আর পাহাড় ধসে আহত হয় ৪জন।


বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions