শনিবার | ২৩ জানুয়ারী, ২০২১

জুরাছড়িতে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস পালিত

প্রকাশঃ ২৫ নভেম্বর, ২০২০ ০৭:১২:০৪ | আপডেটঃ ২০ জানুয়ারী, ২০২১ ০৫:১৯:১৩

সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। আজ ২৫ নভেম্বর, আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস। বৈশ্বিকভাবে ১৬ দিনব্যাপী জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ ক্যাম্পেইন প্রতিপালন পক্ষ এর কার্যক্রমের আওতায় আজ জুরাছড়ি উপজেলায় সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস পালিত হয়।


দিবসের গুরুত্ব বোঝাতে ও প্রচারণা বাড়াতে স্থানীয় উন্নয়ন সংস্থা প্রোগ্রেসিভ কিশোরীদের নিয়ে চিত্রাংকন প্রতিযোগীতার আয়োজন করে। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ধীমান চাকমা, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান রিটন চাকমা, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২নং বনযোগীছড়া ইউনিয়নের মহিলা মেম্বার সাবিনা চাকমা এবং ১৩৩ নং জুরাছড়ি মৌজার মহিলা কার্বারী ঝিনুকা চাকমা।


প্রোগ্রেসিভের ট্রেইনিং অফিসার মিজ এন্টিনা চাকমার সঞ্চালনায় পরিচালিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনাব রিটন চাকমা আয়োজক সংস্থা প্রোগ্রেসিভকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, নারী জাগরণে বেগম রোকেয়ার অবদান অবিস্মরণীয়। বেগম রোকেয়ার আদর্শের অনুসারী হয়ে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় নারীর ভয়েস রেইজ প্রয়োজন। নারীর নিরাপত্তার জন্য নারীর যোগ্যতা বাড়াতে হবে। উপজেলায় নারী উন্নয়ন কার্যক্রমে উপজেলার নারী উন্নয়ন কমিটির সভাপতি হিসেবে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে অংশীদার করা যেতে পারে। তাকে নারী উন্নয়ন কার্যক্রমে জড়িত করা প্রয়োজন। যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার, জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা নিরসন বিষয়ে কিশোরী ক্লাব নিয়ে কাজ করার জন্য রিটন চাকমা প্রোগ্রেসিভকে ধন্যবাদ জানান এবং সর্বাত্মক সহযোগীতার আশ্বাস দেন। 


অনুষ্ঠানে দিবসের প্রতিপাদ্য পাঠ করেন বিএনপিএস-এর মাস্টার ট্রেইনার মিজ রিমি চাকমা। তিনি নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিএনপিএস-এর কার্যক্রম তুলে ধরেন।


চৌমুহনী পাড়া কিশোরী ক্লাবের মেন্টর উর্মি চাকমা তার ক্লাবে কিশোরীদের চাহিদা তুলে ধরলে অনুষ্ঠানের সভাপতি ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ধীমান চাকমা প্রোগ্রেসিভের কিশোরী ক্লাব কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, আমাদের মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরেরও কিশোরী ও মহিলাদের নিয়ে কার্যক্রম আছে। এসব কার্যক্রমের সুবিধাগুলিও কিশোরী ক্লাবের সদস্যরা পেতে পারে। তাই এসব সুবিধা নিতে তাঁর সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। তিনি প্রোগ্রেসিভের কার্যক্রমে অংশীদার হতে সদিচ্ছা পোষণ করেন।


অনুষ্ঠান শেষে চিত্রাংকণ প্রতিযোগীতায় কিশোরীদের আঁকা চিত্র প্রদর্শনী পরিদর্শন শেষে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়। সবশেষে নারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনের দাবী নিয়ে একটি মানব বন্ধন হয়।


উল্লেখ্য যে, রাঙামাটি জেলার স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা  প্রেগ্রেসিভ” কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ” নামক প্রকল্পটি ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থায়নে আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন উন্নয়ন সংস্থা সিমাভি এবং জাতীয় উন্নয়ন সংস্থা বিএনপিএস’র কারিগরি সহায়তায় প্রোগ্রেসিভ ১০ বছর বয়সী কিশোরী থেকে ২৫ বছর বয়সী বিবাহিত ও অবিবাহিত নারীদের প্রজনন স্বাস্থ্য সেবা ও অধিকার বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি, মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা এবং লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে জনসচেতনা বাড়ানো ও প্রয়োজনীয় দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করছে।
রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions