শনিবার | ২৩ জানুয়ারী, ২০২১

বান্দরবানে আন্তর্জাতিক নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ দিবস উদযাপন

প্রকাশঃ ২৫ নভেম্বর, ২০২০ ০২:২১:২৬ | আপডেটঃ ২৩ জানুয়ারী, ২০২১ ০৬:১৮:২৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। “ নারীর জন্য বিশ্ব গড়ো,পর্যাপ্ত বিনিয়োগ করো,সহিংসতা প্রতিরোধ করো” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবানে আন্তর্জাতিক নারীর প্রতি সংহিংসতা প্রতিরোধ দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

২৫ নভেম্বর (বুধবার ) সকালে বান্দরবানের অনন্যা কল্যাণ সংগঠন (একেএস) এর আয়োজনে সুয়ালক ইউনিয়নের আমতলী মারমা পাড়ায় কিশোরীদের নিয়ে এক বর্ণ্যাঢ্য শোভাযাত্রা করে দিবস উদযাপন শুরু হয়। এসময় শোভাযাত্রায় ব্যানার ও ফেস্টুন হাতে নিয়ে পাড়ার কিশোরীরা অংশ নেয়।

পরে আমতলী মারমা পাড়ার কিশোরী ক্লাবে বিএনপিএস ও সিমাভি এর সার্বিক সহযোগিতায়, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এর অর্থায়নে অনন্যা কল্যাণ সংগঠন (একেএস) এর আয়োজনে করা হয় এক আলোচনা সভা।

অনন্যা কল্যাণ সংগঠন (একেএস) এর আমাদের জীবন,আমাদের স্বাস্থ্য,আমাদের ভবিষ্যৎ (ওএলএইচএফ) প্রকল্পের প্রকল্প সমন্ধয়কারী ম্যামিসিং মার্মা এর সঞ্চালনায় অনন্যা কল্যাণ সংগঠন (একেএস) এর নির্বাহী পরিচালক ডনাই প্রু নেলীর সভাপতিত্বে  অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) এর কেন্দ্রীয় অফিসের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সঞ্জয় মজুমদার।  

এসময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে দূর্নীতি দমন প্রতিরোধ কমিটি বান্দরবান জেলা শাখার সভাপতি অংচ মং মারমা,এডভোকেট সারা সুদীপা ইউনুচ,সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর  যক্ষা ও কুষ্ঠ নিয়ন্ত্রন সহকারী নিনি প্রু মারমা,বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) এর মাস্টার ট্রেইনার সুমিত বনিক।

এসময় সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে অনন্যা কল্যাণ সংগঠন (একেএস) এর নির্বাহী পরিচালক ডনাইপ্রু নেলী বলেন,আমাদের কিশোরীদের মন থেকে কুসংস্কার দূর করতে হবে ,জড়তা ফেলে আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হবে। সঠিকভাবে জীবন যাপন করে লেখাপড়া করে সমাজে বেঁচে থাকতে হবে। কিশোরীদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে মা বাবার সাথে তাদের সুবিধা অসুবিধা নিয়ে আলোচনা করতে হবে এবং যেকোন সমস্যা সমাধানে মা বাবার ও পরিবারের সাথে যোগাযোগ বৃদ্ধি করে সমাজে মানুষের মত মানুষ হয়ে বড় হতে হবে।

অনুষ্টানে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) এর কেন্দ্রীয় অফিসের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সঞ্জয় মজুমদার বলেন,সারা বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ ও প্রতিবছর ২৫ নভেম্বর  থেকে ১০ডিসেম্বর পর্যন্ত নারীর প্রতি সংহিংসতা প্রতিরোধে ১৬ দিনব্যাপী সচেতনামূলক কর্মসুচী পালন করে। তিনি আরো বলেন,১৯৯১ সালে উইমেনস গ্লোবাল লিডারশিপ ইনস্টিটিউটে অধিকারকর্মীদের উদ্যোগের মাধ্যমে শুভ সূচনা হয়েছিল এবং প্রতিবছর সেন্টার ফর উইমেনস গ্লোবাল লিডারশীপ কর্তৃক এটি সমন্ধয় করা হয়ে থাকে। বিশ্বব্যাপী নারী ও মেয়েদের প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ ও নিমূলের কৌশল হিসেবে প্রতি বছর ব্যক্তি,প্রতিষ্ঠান এবং সংগঠন পর্যায়ে কিছু কার্যকর কৌশল গ্রহণ ও প্রচারণার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এসময় প্রকল্প ব্যবস্থাপক সঞ্জয় মজুমদার আরো বলেন,আমাদের নারীর জন্য বিশ্ব গড়ো,পর্যাপ্ত বিনিয়োগ করো,সহিংসতা প্রতিরোধ করে এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে  এবং নারীর সুরক্ষায় কাজ করতে হবে।

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions