মঙ্গলবার | ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
বান্দরবানে

পরিচ্ছন্নতা অভিযানের আয়োজকদের দোকানে ময়লার ভাগাড় !

প্রকাশঃ ১৭ অগাস্ট, ২০১৯ ০৮:১৮:৫৮ | আপডেটঃ ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৫:৩৭:২২
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে স্বয়ং আয়োজকদের হোটেলের ভিতরে দেখা মিলল ময়লা আর আর্বজনার । শনিবার সকালে বান্দরবানে “পরিস্কার পরিচ্ছন্ন শহর গড়ি ,সকলে মিলে সুস্থ থাকি” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে বান্দরবান ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ উদ্যোগে এডিস মশার বংশ বিস্তার রোধে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানের শুরুতে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদারসহ পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা আয়োজককারী বান্দরবান ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের নেতা হাফেজ আব্দুল আজিজুর রহমানের হোটেল “ হোটেল হিল পার্ক ” ও ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক গিয়াস উদ্দিন মাস্টারের হোটেল “হোটেল নিউ জামান ” পরিদর্শনে যান। এসময় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন অভিযানের শুরুতেই হোটেলের ভিতরের পরিবেশ দেখে অসন্তোষ প্রকাশ করে স্বয়ং জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার। পরিচ্ছন্নতা অভিযানে গিয়ে হোটেলের রান্নাঘরে নোংরা ও ময়লার ভাগাড় দেখে চমকে ওঠে উপস্থিত অনেকেই। এসময় অনেকেই প্রশ্ন করেন এই অভিযানের মানে কি ? যেখানে আয়োজককারীরাই অপরিস্কার ,সেখানে অন্যরা কিভাবে পরিস্কার থাকবে।

এসময় হোটেলের এই পরিবেশ দেখে বান্দরবানের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার বলেন, আলোর নিচে অন্ধকার , আয়োজক কমিটির নেতৃবৃন্দদের হোটেলে এমন অবস্থা হলে অন্যাদের মাঝে সচেতনতা কিভাবে সৃষ্টি হবে ? আগে নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার মাধ্যমে সচেতন হতে হবে তারপর অন্যকে সচেতন করতে হবে,না হলে মানুষ এটাকে নিয়ে উপহাস করবে।

বান্দরবান সদরের নামকরা দুটি হোটেল ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দদের পরিচালনায় হোটেল হিল পার্ক ও হোটেল নিউ জামান এর বাইরের সাইড পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখলে ও রান্নাঘর এবং হোটেলে কর্মরত শ্রমিকদের অবস্থা শোচনীয়। নোংরা আর অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি এবং পরিবেশন করছে ক্রেতাদের।

পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে স্বয়ং আয়োজকদের হোটেলের ভিতরে ময়লা-আর্বজনার ভাগাড় দেখে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্রেতা জানান,বান্দরবান একটি পর্যটন শহর ,এখানে প্রতিদিনই অসংখ্য পর্যটক ভ্রমনে আসে। কিন্তু দু:খজনক হলে ও সত্যি যে বান্দরবান সদরের নামকরা দুটি হোটেল ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দদের পরিচালনায় হোটেল হিল পার্ক ও হোটেল নিউ জামান এবং বেশ কয়েকটি হোটেলের খাবারের মান ভালো নয়। ক্রেতাদের কাছ থেকে চড়াদাম নিলে ও খাবারের মান নিয়ে প্রায় সময়ই ক্রেতা ও দোকানদারের মধ্যে বাকবিতন্ডতা লেগে যায়।
 
ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা এক পর্যটক মো: মিজানুর রহমান জানান, বান্দরবান বাজারে বিভিন্ন হোটেলের খাবারই ভালো নয় এবং দাম ও বেশি। এসময় তিনি পর্যটন জেলা হিসেবে বান্দরবানের সুনাম ধরে রাখার স্বার্থে জেলার খাবার হোটেলগুলোতে নিয়মিত ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা ও স্বাস্থ্য-সম্মত খাবার পরিবেশনের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম ,পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার, সিভিল সার্জন ডা: অং সুই প্রু মারমা,পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মো:শফিকুর রহমান,সদস্য কাজল কান্তি দাশ, বান্দরবান পৌরসভার প্যানেল মেয়র দিলীপ বড়–য়া, বান্দরবান ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের আহবায়ক গিয়াস উদ্দিন,সিনিয়র সহ-সভাপতি বিমল কান্তি দাশ,সদস্য সচিব মো:আবু সালেহ, বিডি ক্লিন বান্দরবানের জেলা সমন্বয়ক আবু বক্কর ছিদ্দিকসহ ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের নেতা ও বিডি ক্লিন বান্দরবানের সদস্যরা।
 
বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions