শুক্রবার | ২৩ অগাস্ট, ২০১৯

রাঙামাটি জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ ১৯ মে, ২০১৯ ০৫:৫৯:২৮ | আপডেটঃ ২৩ অগাস্ট, ২০১৯ ০১:৩৭:৩০
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাতৃভাষার উপর শিক্ষাদানের জন্য জেলার যেসমস্ত বিদ্যালয় হতে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছিল সেসমস্ত বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের সঠিকভাবে মাতৃভাষার উপর শিক্ষা প্রদান করা হচ্ছে কিনা তা শিক্ষা কর্মকর্তাকে মনিটরিং করার নির্দেশ দিয়েছেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা।

তিনি আরো বলেন, সরকার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া রোধ ও শিক্ষিত জাতি গঠনের লক্ষ্যে এ মহৎ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এ উদ্যোগকে সফল করতে আমাদের সকলকে আন্তরিকভাবে কাজ করে যেতে হবে। তিনি বলেন, যে সমস্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা মাতৃভাষার উপর প্রশিক্ষণ পায়নি তাদের শীঘ্রই প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে এবং এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

রোববার (১৯মে) সকালে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য এবং হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সিভিল সার্জন ডাঃ শহীদ তালুকদার বলেন, মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়ায় রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পূর্বের তুলনায় বর্তমানে ডেলিভারী সংখ্যা বেড়েছে। প্রতি মাসে প্রায় ১২০জন গর্র্ভবতীকে ডেলিভারী করানো হচ্ছে। তিনি বলেন, গত মার্চ ও এপ্রিল মাসে ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া ও ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাও কম ছিল। সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন উপজেলাগুলোতে স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে।  এছাড়া জেনারেল হাসপাতাল ও কমিউনিটি ক্লিনিকে সকল স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রবিউল হোসেন বলেন, এ বছরও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের মাঝে নিজ নিজ মাতৃভাষার বই বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া পড়ালেখার মান উন্নয়নে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে ১০৯টি মাল্টিমিডিয়া ও সাউন্ড সিস্টেম প্রদান করা হয়েছে। তিনি বলেন, রমজান ও ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে গত ৬ মে থেকে আগামী ১০জুন পর্যন্ত বিদ্যালয়গুলো বন্ধ রয়েছে।

স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রতিনিধি বলেন, জেলার কাপ্তাই, বিলাইছড়ি, রাজস্থলী, কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৫০শয্যায় উন্নীতকরণের কাজ চলছে। বাকী উপজেলাগুলোও পর্যায়ক্রমে করা হবে। তিনি বলেন, রাজস্থলীতে পরিবার পরিকল্পনা অফিস কাম ষ্টোর নির্মাণ এবং কাপ্তাইয়ে আরটিসি মান উন্নীতকরণ কাজ চলছে। এছাড়া ২৬টি নতুন কমিউনিটি ক্লিনিকের নির্মাণ কাজ চলছে।  

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (অঃদাঃ)মোঃ শহীদুল ইসলাম বলেন, আতœকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বেকার যুবদের ৬মাসব্যাপী যুব উন্নয়নে ৭টি ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে। আগামী জুন মাসে নতুন প্রশিক্ষণার্থী ভর্তি করানো হবে।

সমাজসেবা বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ওমর ফারুক বলেন, বয়স্ক, প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা, বিধবা ভাতা, ক্যান্সার, লিভার সিরোসিস, ষ্ট্রোকে প্যারালাইসিস রোগীদের নিয়মিত চিকিৎসা ভাতা প্রদান করা হচ্ছে।  
হর্টিকালচার সেন্টার আসামবস্তি, বালুখালী, বনরুপা, লংগদু, নানিয়ারচর ও কাপ্তাইয়ের উদ্দ্যান তত্ববিদরা জানান, আগামী বর্ষা মৌসুমকে সামনে রেখে নার্সারিতে টার্গেট অনুযায়ী বিভিন্ন প্রজাতির গাছের চারাকলম উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রয় কার্যক্রম চলছে।

সভায় হস্তান্তরিত বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন।

উন্নয়ন খবর |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions