শুক্রবার | ১৯ এপ্রিল, ২০১৯

বান্দরবানে সন্ত্রাসী হামলায় কৃষি কর্মকর্তা জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে

প্রকাশঃ ২১ মার্চ, ২০১৯ ০৮:২৩:১৮ | আপডেটঃ ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০৭:০৭:০৪
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়ে কনক হোড় নামে একজন কৃষি কর্মকর্তা এখন জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছেন। তিনি বান্দরবান হট্টিকালচার সেন্টারে উপসহকারী উদ্যান কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত।

গত বুধবার(২০ মার্চ) সন্ধ্যায় শহরের বালাঘাটা বাজার থেকে হট্টিকালচার সেন্টারের সরকারি ডরমেটরীতে ফেরার পথে ৩ জন যুবক সন্ত্রাসী কায়দায় তাকে পুলিশ লাইনের সামনে ইট পাথরসহ ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করতে থাকে। এসময় স্থানীয় এক মহিলা চিৎকার করে মানুষ জড়ো করতে চাইলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীদের আঘাতে ঘটনাস্থলেই জ্ঞান হারান কনক হোড়। পরে পরিচিতরা তাকে দ্রুত হিলভিউ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে পৌরসভার একটি এ্যা¤ু^লেন্সে করে দ্রুত চট্টগ্রামের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে বুধবার রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসা দেয়া হয়।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, কনকের মাথা ও মুখমন্ডলে মারাত্মক ভাবে আঘাত করা হয়েছে। তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে চিকিৎসকরা জানান।

এ ব্যাপারে বালাঘাটা হট্টিকালচার সেন্টারের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মিজানুর রহমান জানান, ঘটনাটি শোনার পর তাৎক্ষনিক উন্নত চিকিৎসার জন্য কনক হোড়কে চট্টগ্রামে পাঠানো হয়েছে। তার সিটি স্ক্যানসহ প্রয়োজনীয় পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

ঘটনা প্রসঙ্গে কৃষিবিদ মিজানুর রহমান জানান, বালাঘাটা এলাকার কিছু ব্যক্তি নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করেই সরকারি হট্টিকালচার এলাকায় প্রবেশ করেন। নিষেধ করা হলেও তারা কোন কর্ণপাত করে না। বরং উল্টো সরকারি কর্মচারীদের হুমকি প্রদান করা হয়। কিছুদিন আগে একদল যুবক জোর পূর্বক হট্টিকালচার সেন্টারে ঢুকে নারিকেল ছিড়তে থাকে। তাদের বাধা দিলে যুবকরা কর্মচারীদের উপর চরম ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন এবং নানান ধরণের ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। কনক হোড়কে মারধরের ঘটনাটি এরই সূত্র ধরে হতে পারে বলে হট্টিকালচার সেন্টারের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মিজানুর রহমান উল্লেখ করেন।

তিনি আরো বলেন, ঘটনার পরই বিষয়টি তিনি পুলিশ  সুপারকে ফোনে অবহিত করেছেন। বান্দরবান থানার অফিসার ইনচার্জ ও বিষয়টি অবগত আছেন বলে তিনি জানান। বর্তমানে বালাঘাটা এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হলেও কাউকে আটক করা যায়নি। এঘটনার পর হট্টিকালচার সেন্টারের কর্মচারীদের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে। তারা বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে কর্মচারীগণ জানান।

হট্টিকালচার সেন্টারের কর্মচারীরা জানান, বান্দরবান ক্যান্টমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র মানিকের নেতৃত্বে রুবেল ও তারেকসহ আরো অনেকে হট্টিকালচার সেন্টারে ফলমুল চুরি করতে আসে। তাদের বাধা দিলে তারা বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি প্রর্দশন করে। কিছুদিন আগে তারা ডাব চুরি করতে হট্টিকালচার সেন্টারে প্রবেশ করে তাদের নিষেধ করা হয়। এসময় তারা বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি প্রর্দশনপূর্বক কর্মচারীদের হুমকি প্রদান করে।
বিষয়টি বান্দরবান পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কমিশনার মোহাম্মদ আলীকেও কর্মচারীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে বলে তারা জানান।

এব্যাপারে বান্দরবান পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী বলেন, হট্টিকালচার এলাকাসহ শৈলশোভা হাউজিং এলাকার কিছু যুবক প্রায়শই উশৃঙ্খল আচরণ করে। তাদের ব্যাপারে এলাকাবাসীর অভিযোগে শেষ নেই। তিনি এর আগেও একাধিকবার এসকল যুবকদের বিচার করেছেন। তাদের অভিভাবকদের কাছে নালিশ করেও তেমন সাড়া পায়নি বলে কাউন্সিলর জানান।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions