রাঙামাটিতে যুগান্তরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

প্রকাশঃ ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ০৫:১৭:৫২ | আপডেটঃ ২৩ জানুয়ারী, ২০২০ ১০:৪৯:১০
সিএইচটি টুডে ডট কম,রাঙামাটি। সত্যের সন্ধানে নির্ভীক দৈনিক যুগান্তরের প্রতিষ্ঠাার্ষিকী ও দুই দশকে পদার্পণ উপলক্ষে রাঙামাটিতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদপত্রটির স্বজন সমাবেশ জেলা শাখার উদ্যোগে ও জেলা প্রতিনিধির সার্বিক ব্যবস্থাপনায় সকাল ১০টায় শহরের কোর্ট বিল্ডিংয়ের সামনে থেকে শোভাযাত্রাটি বের করে হ্যাপির মোড় চত্ত্বর ঘুরে আবার কোর্টবিল্ডিং চত্ত্বর গিয়ে শেষ হয়।

পরে রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটির কন্ফারেন্স কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলায় কর্মরত বিভিন্ন সংবাদপত্র, গণমাধ্যম ও সংস্কৃতিকর্মীসহ যুগান্তরের স্বজন সমাবেশের জেলা শাখার সদস্যরা শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভায় অংশ নেন।

সংবাদপত্রটির জেলা প্রতিনিধি ও স্বজন সমাবেশ জেলা শাখার উপদেষ্টা সুশীল প্রসাদ চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও এসএ টিভির জেলা প্রতিনিধি মো. সোলায়মান, রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি চৌধুরী হারুনুর রশিদ, দৈনিক সমকাল এর জেলা প্রতিনিধি সত্রং চাকমা,  চট্টগ্রামের দৈনিক পূর্বদেশ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এম কামাল উদ্দিন ও সময় টিভির জেলা প্রতিনিধি হেফাজত-উল বারি সবুজ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, দৈনিক আমাদের সময়ের জেলা প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান জুয়েল।

বক্তারা বলেন, যুগান্তর শুরু থেকে দেশের সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতার জগতে বিশাল অবদান রাখছে। যুগান্তর সব সময় দেশ, জাতি ও আপামর জনগণের কথা বলে আসছে। ফলে দেশের সেরা দৈনিক এবং লাখ লাখ পাঠকসহ জনমানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিতে সক্ষম হয়েছে দৈনিক যুগান্তর। রাঙ্গামাটিতে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন, পত্রিকাটির জেলা প্রতিনিধি।

যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি সুশীল প্রসাদ চাকমা বলেন, সত্য প্রকাশে বরাবরই অবিচল ও আপসহীনতার প্রমাণ রেখে ২০ বছরে পা রখল, দেশের সেরা দৈনিক যুগান্তর। দুর্নীতি, অনিয়মসহ সব অপকর্মের বিরুদ্ধে এবং দেশ, জাতি ও জনগণের স্বার্থে সবক্ষেত্রে দায়িত্বশীল ভূমিকা রেখে চলেছে যুগান্তর। ফলে সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে আপসহীন ও দক্ষতার পরিচয় দিতে সক্ষম হয়েছে পত্রিকাটি। স্থান পেয়েছে গণমানুষের হৃদয়জুড়ে। সংবাদ প্রকাশে সব সময় পার্বত্য চট্টগ্রামের বৃহত্তর স্বার্থের বিষয়টি প্রাধান্য দিয়ে মূল্যায়ন করে আসছে, যার প্রমাণ দেখে আসছে পার্বত্যবাসী। যুগান্তর পরিবারের পক্ষে পার্বত্যবাসীর প্রতি দুই দশকে পদার্পণের শুভেচ্ছা জানান তিনি।