রাঙামাটি আসনে আমরা বিজয়ী হব- এড. দীপেন দেওয়ান

প্রকাশঃ ২৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:২১:০৯ | আপডেটঃ ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:৪৬:৫০
হিমেল চাকমা, বিশেষ প্রতিনিধি, সিএইচটি টুডে ডট কম। এবার নির্বাচনে রাঙামাটি আসনে বিএনপির বিজয় হবে বিশ্বাস করেন দলের মনোনয়ন পাওয়া এড.দীপেন দেওয়ান। মনোনয়ন পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়া এ কথা বলেন, তিনি। তিনি আরো বলেন,  মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংখ্যা কমায় একগুচ্ছ হয়েছে বিএনপির শক্তি। গত সোমবার দীপেন দেওয়ান ও সাবেক সাংসদ মনি স্বপন দেওয়ানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়।

দীপেন দেওয়ান আরো বলেন, ম্যাডাম খালেদা জিয়ার আসনেও বিকল্প প্রার্থী রাখা হয়েছে রাঙামাটিতে বিকল্প প্রার্থী রাখা হয়েছে। এ নিয়ে বিভ্রান্ত হবার কোন কারণ নেই। এক সময় মনি স্বপনও দলের জন্য কাজ করেছেন। আমার মনোনয়নে সমস্যা হলে মনি স্বপন দা বিএনপির প্রার্থী হবেন। মনোনয়ন ফরম পুরণে যেন ভুল না হয় সে জন আমরা কাজ করছি। এ ছাড়াও আমার মনোনয়ন বাতিল হয় এমন কোন কিছু নেই। সব ঠিক আছে। আমাদের লক্ষ্য আমরা বিজয়ী হয়ে আসনটি উপহার দেব।

এদিকে মনোনয়ন পাওয়ার পর কলেজ গেট মন্ত্রী পাড়ায় দীপেন দেওয়ানের বাসায় শুভেচ্ছা জানাতে ভিড় করছেন দলের নেতাকর্মী ছাড়াও তার শুভাকাঙ্খীরা।

সাধারণ ভোটাররা বলছেন, বিএনপি দীপেনকে প্রাধান্য দেওয়ায় জয়ের পাল্লা ঝুঁকতে পারে বিএনপির দিকে। কারণ দলের দীপেন দেওয়ান চেয়ে ব্যাক্তি দীপেন দেওয়ানের জনপ্রিয়তা বেশী। জরুরী অবস্থায় মনি স্বপন বিএনপি ছেড়ে এলডিপিতে যোগ দিলে চাকুরি ছেড়ে দলের হাল ধরেছিলেন দীপেন। এরপর ছুটে বেড়ান প্রত্যন্ত অঞ্চলে। সংগঠিত করেন দলকে। পাহাড়ি বাঙালী সমন্বয় করে গঠন করেন নতুন বিএনপি।

জজের চাকুরী ছেড়ে রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার পর  দ্রুত সাধারণ মানুষের সাথে মিশে যান দীপেন দেওয়ান। তৃণমুলে তাঁর বিচরণ ছিল লক্ষ্যণীয়। পাড়া মহল্লায় বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠানে উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত।
দীপেন দেওয়ান বলেন, আমি যখন ঢাকায় মনোনয়ন পত্রের অপেক্ষায় ছিলাম তখন অনেক ভান্তে (বুদ্ধ ভিক্ষু) মোবাইলে আমার খবর নিয়েছেন। আমার বিশ্বাস সবার ভালবাসায় রাঙামাটি আসনে আমরা জয়ী হব।

দলের কোন্দল ব্যাপারে দীপেন বলেন, বড় দল প্রতিযোগীতা থাকে। এগুলো থাকবে। কিন্তু কিছু মানুষ আছে তিলকে তাল করে। এর মধ্যে  সাংবাদিকও আছে। যিনি বিরোধ তৈরি করে। জানি না এর সাথে আমার কি সমস্যা। কোনদিন তো এর সাথে আমার ব্যবসা বানিজ্য ছিল না। এসব ঠিক নয়। তার প্রতি আমার ক্ষোভ নেই। সে লিখুক। দেখা যায় তাঁর লেখায় সে ধরা খায়। মানুষ তো বোকা নয়।  বিএনপির মাঝে কোন কোন্দল নেই। আমরা সবাই এক।