রবিবার | ১৭ নভেম্বর, ২০১৯
বাঘাইছড়িতে

জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের ২ নেতা হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ, এখনো মামলা হয়নি, গ্রেফতারও নেই

প্রকাশঃ ১২ অগাস্ট, ২০১৯ ০৬:৫৫:০৯ | আপডেটঃ ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:৪১:১৯
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে রোববার দিবাগত রাতে জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের ২ নেতা হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে সংগঠনটির নেতা কর্মীরা।  সোমবার দুপুরে এই প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি বাবু পাড়া থেকে শুরু হয়ে চৌমুহনী সদরে এসে শেষ হয়,  এসময় জেএসএস এমএন লারমা দলের নেতারা এই হত্যাকান্ডের জন্য সন্তু লারমা নেতৃত্বাধীন জেএসএস কে দায়ী করেন এবং দোষীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেএসএস এমএন লারমা দলের বাঘাইছড়ি সভাপতি সুরেশ চাকমা, সাধারন সম্পাদক জ্ঞানোজিৎ চাকমা, সাংগঠনিক সম্পাদক জসি চাকমা, থানা কমিটির সদস্য রুবেল চাকমা, ও পিসিপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জগদিশ চাকমা এসময় জেএসএস এমএন লারমা দলের শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে  বক্তারা বলেন এই হত্যাকান্ডের সাথে সন্তু লারমা সমর্থীত জেএসএস সরাসরি জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা না হলে বাঘাইছড়ি উপজেলায় যে কোন অনাকাংখিত ঘটনার জন্য প্রশাসন দায়ী থাকবে।

এদিকে পুলিশ সকালে লাশ ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এই ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি এবং পুলিশও কাউকে গ্রেফতার করতে পারিনি বলে নিশ্চিত  করেছেন বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  এমএ মনজুরুল আলম। জোড়া হত্যাকান্ডোর পর থেকে এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে উপজেলায় বিজিবি  ও পুলিশের যৌথ টহল অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন স্থানে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী চেক পোষ্ট বসিয়ে তল্লাসি করছে।

প্রসঙ্গত: রোববার দিবাগত রাত পৌনে ১২টায় বাঘাইছড়ির বাবুপাড়ায় প্রতিপক্ষের গুলিতে জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের কেন্দ্রীয়  যুব সমিতি’র  সাধারণ সম্পাদক শতসিদ্ধী চাকমা (৩৮) এবং বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এনো চাকমাকে (৩৫) গুলি করে হত্যা  করে দুবৃর্ত্তরা। এই ঘটনার জন্য সংগঠনটি সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস দায়ী করেছে।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions